Post has shared content
স্বামী ও স্ত্রী --

স্বামীঃ তুমি আগামী শুক্রবার তোমার
চাচাতো বোনের বিবাহের অনুষ্ঠানে যেতে
চাচ্ছো ?
.
স্ত্রীঃ হ্যাঁ, কেন নয়? বিশেষ একটা দিন!
.
স্বামীঃ তুমি বোরকা ছাড়া ঘর থেকে বের হতে
পারো না।
.
স্ত্রীঃ দেখো!! আমি বাহিরে বোরকা পরিধান করে
বের হয়ে থাকি এ জন্য সবর্দা বোরকা পড়ে বের
হতে হবে? আর তুমিতো আমার সাথেই যাচ্ছো?? তুমি
কি আমাকে সন্দেহ করো??
.
স্বামীঃ সন্দেহ করবো কেন?? আচ্ছা আমি বাজারে
যাচ্ছি।
.
স্ত্রীঃ কেন?
.
স্বামীঃ একটা জিনিস আনতে।
(স্বামী বাজারে গিয়ে একটা বল কিনে আনলেন যে
বলটা দেখলে মনে হবেই এটা স্বর্ণের তৈরি বল।
অতঃপর স্বামী বলটি নিয়ে বাসায় গেলেন।)
.
স্ত্রীঃ এটা কি স্বর্ণের ?
.
স্বামীঃ হ্যাঁ এটা অনেক মূল্যবান। এটা ড্রইং রুমে
ঝুলিয়ে রাখতে পারো।
.
স্ত্রীঃ তুমি কি বোকা? কেউ যদি এটা দেখে ফেলে
এবং চুরি করে?
.
স্বামীঃ দুটো দিন ঝুলিয়ে রাখ, এরপরে না হয়
আলমারিতে রেখে দিও।
.
স্ত্রীঃ তোমার মাথায় কি গোবর ? যখন কেউ যেনে
যাবে আমাদের কাছে স্বর্ণের বল আছে তখন সে
নিশ্চয় অন্যকে বলে দিবে, এরপর তারা সকলে
মিলে ডাকাতি করতে আসতে পারে।
.
স্বামীঃ (মুচকি হেসে বলল) তুমি তো ভীষণ চালাক,,
তুমি স্বর্ণের বল আলমারিতে সুরক্ষিত করতে চাও
অথচ বোরকার ভিতর নিজেকে সুরক্ষিত করতে
চাওনা। তুমি কি জানো তুমি আমার কাছে পৃথিবীর
সবচেয়ে দামী ? সুতরাং তোমাকেও আমি সুরক্ষিত
করে রাখতে চাই। একটা দিন যদি তুমি বোরাকা
ছাড়া বের হও প্রথম দিন তোমার উপর দুষ্টু লোকদের
বদ নজরে পড়বে, তারা তোমার সৌন্দর্যময় দেহের
প্রতি লুভি হয়ে উঠবে, তার একদিন সুযোগ বুঝে
তোমার শ্রেষ্ট সম্পদের উপর আক্রোমন করে বসবে।
তখন কি হবে বুঝতে পারছো?
.
স্ত্রীঃ সত্যিই কি আমি তোমার কাছে পৃথিবীর
শ্রেষ্ঠ সম্পদ??
.
স্বামীঃ অবশ্যই.. কেন নয়? ,,হাদীসে আছে উত্তম
স্ত্রী পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ সম্পদ।
.
স্ত্রীঃ আজ থেকে আল্লাহর পর্দার বিধান সঠিক
রুপে পালন করবই। ইনশা আল্লাহ। আমি বুঝতে
পারছি।
.
স্বামীঃ আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহ কবুল করুন। তুমি
কেদনা,, বলে স্ত্রীর চোখের পানি মুছে দিলেন
স্বামী।
.
প্রিয় দ্বীনদার বোনেরা,, আপনারা আপনাদের অর্থ
ব্যাংকে আর স্বর্ণ সিন্দুকের সুরক্ষিত করছেন অথচ
আপনার রূপ সৌন্দর্য হিজাব দ্বারা সুরক্ষিত করছেন
না। আপনাদের কাছে কোনটা বেশী মূল্যবান??
Photo

Post has attachment
We are 1995 batch of dulahazara high school.
PhotoPhotoPhoto
21/07/2016
3 Photos - View album

Post has attachment
ডুলাহাজারা উচ্চ বিদ্যালয়, ১৯৯৫ ব্যাচ।
Photo
Wait while more posts are being loaded