Post has attachment
চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনির চাঁদাবাজির গোপন ভিডিও ফাঁস।
আবারো বিতর্কে জড়ালেন মহানগর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি।
অতঃপর আজ পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন ।

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নুরুল আজিম রনি পদত্যাগ করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার তিনি লিখিত পদত্যাগপত্র কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতাদের কাছে জমা দেন।

রনির পদত্যাগ পত্রটি বিকেল থেকে ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। চট্টগ্রাম মহানগর, চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের নেতা কর্মীদের নুরুল আজিম রনি`র পদত্যাগে ক্ষোভ, হতাশা ও কষ্ট প্রকাশ করতে দেখা যায়।

পদত্যাগ পত্রে নুরুল আজিম রনি ব্যাক্তিগত কারণে পদত্যাগ করছেন বলে উল্লেখ করেছেন। তার অবর্তমানে কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানা গেছে।


এ ব্যাপারে নুরুল আজিম রনিকে ফোন করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এ প্রতিবেদনটি লিখা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজী হননি।

উল্লেখ্য #চট্টগ্রাম #মহানগর #ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনির চট্টগ্রামের জিইসি মোড়ের একটি কোচিং সেন্টারের পরিচালক রাশেদ মিয়াকে চড় মারার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ওই ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়লে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে নুরুল আজিম রনি পদত্যাগ করেছেন বলে জানা যায়।

এর আগে চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেশী টাকা আদায় করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে নুরুল আজিম রনি শিক্ষার্থীদের পক্ষ অবলম্বন করে এর প্রতিবাদ করে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আলোচনায় আসেন।

https://youtu.be/Wo7sEkl7OpY

Post has attachment
#justiceforasifa
মৃত্যুর আগেও ধর্ষণ থেকে রক্ষাপায়নি ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীরের আট বছরের মুসলিম শিশু
https://youtu.be/l_CYKINHqk0

আসিফা বানু।

তাকে এক সপ্তাহ ধরে আটকে রেখে ধর্ষণ করার পর পাথর ছুড়ে হত্যার আগে আবারও ধর্ষণ করা হয়েছিল।

গত জানুয়ারিতে জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলার রাসানা গ্রামে আসিফাকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনা ঘটে।

এতে নেতৃত্ব দেন এক মন্দিরের তত্ত্বাবধায়ক ও দুই স্পেশাল পুলিশ কর্মকর্তা।

হত্যার আগেও ধর্ষণ থেকে রেহাই পায়নি শিশু আসিফা।

তারা শিশু আসিফাকে এক সপ্তাহ ধরে আটকে রেখে ধর্ষণ করেন। পরে তাকে পাথর ছুড়ে হত্যার আগে আবারও ধর্ষণ করা হয়।

অভিযুক্তরা হলেন স্থানীয় মন্দিরের তত্ত্বাবধায়ক সাঞ্জি রাম, স্পেশাল পুলিশ কর্মকর্তা দীপক খাজুরিয়া ও সুরেন্দ্র বর্মা, সাঞ্জি রামের বন্ধু পরভেশ কুমার ওরফে মন্নু, রামের নাবালক ভাতিজা ও ছেলে বিশাল জঙ্গোত্র ওরফে শম্মা।

পুলিশের দেয়া ১৫ পৃষ্ঠার এক অভিযোগপত্রে আসিফাকে হত্যার বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়।

এতে উল্লেখ করা হয়েছে, গত জানুয়ারিতে কাঠুয়া জেলার রাসানা এলাকায় মুসলিম বাখেরওয়াল সম্প্রদায়ের শিশু আসিফাকে অপহরণ করে এক সপ্তাহ আটকে রেখে ধর্ষণের পর পাথর ছুড়ে হত্যা করা হয়।

আসিফাকে প্রথমবার ধর্ষণের পর তাকে মাদক দিয়ে অজ্ঞান করে রাখা হয়। এর পর পাথর ছুড়ে হত্যার আগে আবারও ধর্ষণ করা হয়।

অভিযোগপত্রে আরও বলা হয়েছে, রাসানা অঞ্চল থেকে সংখ্যালঘু যাযাবর সম্প্রদায়ের মানুষদের তাড়িয়ে দেয়ার জন্যই পরিকল্পিতভাবে শিশুটি অপহরণের পর ধর্ষণের করে হত্যা করা হয়।

এই বর্বরোচিত ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত মন্দির তত্ত্বাবধায়ক সাঞ্জি রাম। তিনি তদন্ত কর্মকর্তাদের ঘটনার তদন্ত প্রভাবিত করতে ঘুষ দেন।

এ বিষয়ে অভিযোগপত্রে বলা হয়, তদন্ত কর্মকর্তাদের মধ্যে হেড কনস্টেবল তিলক রাজ ও সাব-ইন্সপেক্টর আনন্দ দত্ত অভিযুক্ত সাঞ্জি রামের কাছ থেকে চার লাখ রুপি ঘুষ দিয়ে ঘটনার প্রমাণ নস্যাৎ করেছেন।

Post has attachment
রগ কাটা’ নেত্রীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করলো ছাত্রলীগ । ইশরাত জাহান ইশাকে আবার ছাত্রলীগে ।
ঢাবির সেই ‘রগ কাটা’ নেত্রীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করলো ছাত্রলীগ

কোটা সংস্কার আন্দোলনে জড়িত থাকায় এক ছাত্রীর পায়ের ‘রগ কেটে দেয়ার’ অভিযোগে বহিষ্কার হওয়া ঢাকা বিশ্বদ্যিালয়ের কবি সুফিয়া কামাল হল ছাত্রলীগ সভাপতি ইশরাত জাহান ইশাকে আবার সংগঠনে ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে।

https://youtu.be/7Lfx11Wv7SA

Post has attachment
পরকীয়া দেখে ফেলায় সন্তানকে পুড়িয়ে হত্যা করল মা ! পরকীয়া লুকাতে সন্তানকে পুড়িয়ে হত্যা ।

https://youtu.be/FWOHE2mSP38

Post has attachment
শাড়িতে আল্লাহু লেখা ! দেশী দশ এর বৈশাখের শাড়িতে আল্লাহু লেখা। নাউজুবিল্লাহ ।
https://youtu.be/8rVTRJP4aoY

Post has attachment
যোনি পূজা এবং কামরূপ কামাখ্যা । যেখানে গেলে কোন পুরুষ ফিরে আসে না । যৌবনবতী নারীদের রাজত্ব্ !

https://youtu.be/YW6XCosVCIY

Post has attachment
দেখুন , মোশারফ করিমের মেয়েদের পোষাক বিষয়ক যে ভিডিও নিয়ে সারা দেশে তোলপাড়
https://youtu.be/IXfCsIX8BJE

Post has attachment
ওরা সুবিধাবাদী দলের লোক, সুযোগসন্ধানী।

মো : রেজাউল করিম, রাজশাহী :
(সংবাদ টি প্রকাশনায় আসছে বিস্তারিত )
ওদের জীবনই ধন্য, কারণ ওরা সুবিধাবাদী দলের লোক। বঞ্চিত থাকে তারাই, যারা প্রতিদানে কিছু চাই না। উন্নয়ন হয়েছে, সামান্য বদনাম আছে সুবিধাবাদী দলের লোকদের কারণে।

সারসংক্ষেপ বা বিষয়বস্তু নিম্নরূপ :
দলমত নির্বিশেষে ভাঙাপাত্র ভর্তি জল যেমন আশাকে জাগিয়ে রাখতে পারে না, যে তৃষ্ণা মেটাবে, তেমনি ভাঙাপাত্রের মতোই সুবিধাবাদীরা। যেখানে সুবিধাবাদী বা সুযোগসন্ধানীদের বাস সেখানে খারাপ বা দুর্নীতি হবে সেটা স্বাভাবিক। সুযোগসন্ধানীরা সুযোগ খুঁজতে গিয়ে করে ফেলেন নানা দুর্নীতি বা অপকর্ম যা পুরো সমাজ বা জাতিকে করে কলংকিত। বর্তমান সরকারের উন্নয়ন হয়েছে বলে, উন্নয়ন দেশের স্বীকৃতি পেয়েছে বাংলাদেশ এটা সত্য, তেমনি আওয়ামীলীগ বা ক্ষমতাসীন দলের বড় পদের নেতারা স্বার্থনিসি হয়ে, যাচাই বাছাই না করে দলে নতুন ভাবে তাদেরই কাছের বা অর্থের বিনিময়ে নতুন নেতা বানিয়েছে তাদের কারণেই আজ আওয়ামীলীগের কিছু বদনাম আছে। এই বদনাম টুকুও থাকতো না যদি দলে নতুন সেই সুযোগসন্ধানী রা না থাকতো। আওয়ামীলীগের বড় পর্যায়ের নেতারা খারাপ না, খারাপ হঠাৎ করে যাদের দলে উত্থান, যারা সেই সুবিধাবাদী দলের লোক। বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে যে আজ ডিজিটাল ও স্বনির্ভর দেশ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করছে সেই নেত্রী, বাংলার মা, মাননীয় প্রধান মন্ত্রী বারংবার বলেছেন আমার এতো নেতার প্রয়োজন নাই, আমার প্রয়োজন যারা দলকে ভালোবাসে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আদর্শিত তাদের মতো কর্মী। তবুও এক শ্রেণীর নেতারা স্বার্থসিদ্ধি হাসিলে নতুন নেতার জন্ম দেয়, যার ফল ভোগ করে সমগ্র দল। একটি উদাহরণ না দিলেই না, রাজশাহী রেলওয়ে শ্রমিকলীগের ভাইটাল পদের এক নেতার জন্ম কুন্ডুলি দেখে তো অবাক হলাম। এক সময় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ব বিদ্যলয়ের ছাত্র দলের যুগ্ন সম্পাদক এবং চাঁদাবাজি মামলার আসামি, রেলের নিয়োগ বাণিজ্যের নেতা কিভাবে এতবড় গুরুত্ব পূর্ণ স্থানে জায়গা পাই তা আমার বোধগমে আসে না। রেলওয়ে শ্রমিক লীগের অন্য এক নেতা বলেন, রাজপথে রাজনীতি করে, দলের এতো পুরাতন আস্থাভাজন হয়েও এতবড়ো গুরুত্বপূর্ণ স্থান আমরা পাই না, তারপর দলে আছি থাকবো আজীবন।

ছবিটি মনে করে দেয় আদর্শ কাকে বলে, জয় বাংলা, বাংলার জয়, মুক্তিকামী স্বাধীনতার মহানায়ক প্রিয় নেতার বীরত্বের ছবি।
আমি কোনো দলকে ছোট করতে লিখনিটি না। শুধুই জাতির জনকে ভালোবাসার ফলে, দলের প্রধানদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
Photo

Post has attachment
কলম্বিয়ার গেরিলা বাহিনীর কিছু নতুন ছবি দেখুন, কতটা কঠিন জীবনযাপন করত এই গোষ্ঠীর সদস্যেরা
https://youtu.be/D22AJlGtf3w

Post has attachment
এসে গেল স্মার্ট কনডম । ব্রিটেনের নটিংহ্যামের সংস্থা 'ব্রিটিশ কনডমস' এটি তৈরি করছে ।
https://youtu.be/F49rP2iblfo
Wait while more posts are being loaded