Post has attachment
বসন্ত বরণ
PhotoPhotoPhotoPhotoPhoto
2/13/17
9 Photos - View album

Post has attachment
রাজশাহী কলেজের মাননীয় অধ্যক্ষ প্রফেসর মহাঃ হবিবুর রহমান ছাত্রছাত্রীদের মেধা বিকাশে বিভিন্ন প্রতিযোগীতামূলক অনুষ্ঠানে ছাত্রছাত্রী প্রেরণ করে থাকেন। ছাত্রছাত্রীরাও তাদের মেধা ও শ্রমের মাধ্যমে এসব জায়গা থেকে পুরষ্কার ছিনিয়ে এনে কলেজের সুনাম অক্ষুন্ন রাখছে।
Photo

Post has attachment
দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক বিতর্ক প্রতিযোগীতা ২০১৫ এর প্রতিযোগীতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রাজশাহী কলেজ এর প্রতিযোগী দল।
Photo

Post has attachment
১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় রাজশাহী কলেজের মুসলিম হোস্টেলের একটি কক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেই সভা থেকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় যে শহীদদের স্মরণে হোস্টেল প্রাঙ্গণে একটি স্মৃতিস্তম্ভ তৈরি করা হবে।

ব্যাস এতটুকুই, এরপর রাজশাহী কলেজ হোস্টেলের জনাদশেকের সঙ্গে আরও জনাদশেক মিলে রাত সাড়ে ৯টায় শুরু হলো শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ কাজ। অদক্ষ হাতে রাত ১২টায় নির্মাণ হলো দেশের প্রথম শহীদ মিনার। এর গায়ে লেখা হলো 'শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ'। অবশ্য কয়েক ঘণ্টা পরই তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের পুলিশ সেটি ভেঙ্গে দেয়।

বাংলাদেশে নির্মিত প্রথম শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ এটা। কিন্তু এতদিনেও মিলেনি কোন রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি। রাজশাহীর এই শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ নিয়ে লিখা শুরু করেছি। যেহেতু এটার গ্রহনযোগ্যতা নিয়ে এখনো বেশ বিতর্ক তাই অনেক গ্রহনযোগ্য তথ্যসূত্র এর উপর ভিত্তি করে উইকিপিডিয়াতে লিখছি এই শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ সম্পর্কে। কেও হেল্প করতে পারলে অনেক বেশি সুবিধা হবে। বিশেষ করে ইংরেজী সহ একাধিক ভাষায় এটার অনুবাদ করা প্রয়োজন।
Wait while more posts are being loaded