Post has attachment

Post has attachment

Post has attachment

Post has attachment
7 Easy Ways to #Save_Money_Each_Month - কিভাবে প্রতি মাসে আরও টাকা জমাবো - আপনি জানতে পারবেন #টাকা_জমানোর কিছু #দুষ্টু_আইডিয়া যেটা follow করলে আপনিও খুব সহজেই হাতখরচ কমিয়ে টাকা জমাতে পারবেন। আসলে #জমা_vs_খরচ এই হিসাবটা যে ভালো বুঝবে আর #right_mind সেট করতে পারবে, তার পক্ষে #টাকা_পয়সা বা #সম্পদ_বৃদ্ধি খুবই সহজ হবে। এই ব্যাপার টা আপনি #টাকা_জমানোর_কৌশল বলতে পারেন।

Watch this Video On YouTube -- https://youtu.be/_v80gX4OzLE

Post has shared content
How Do I Save Money | টাকা জমানোর উপায় | Money Saving Plan By Warren Buffett
আরও ভিডিও দেখুন - https://goo.gl/1MXKHO

Post has attachment

Post has attachment

আমি নেশা খোর বেঈমান লুচ্ছা বদনাইস দুসচরিত্রা, এসব যদি মেনে নিতে না পারো,
তাহলে বলে দাও আমাকে চলে যেতে আমি চলে যাই, তবুও আর সুখ দিও না, সুখ গুলো এখনও অশ্রু হয়ে চোখে গড়ায়, আর কি দেখতে চাও আমার, নাকি মরন চাও যদি এমন চাওয়া থাকে, এভাবে তিলে তিলে না মেরে এক বলে দাও তবুও ভালো।।

Post has shared content

Post has shared content
পূজায় সরকারি বরাদ্দ আছে, ঈদে সরকারি বরাদ্দ কোথায় ??

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের পূজা উপলক্ষে সরকারিভাবে বরাদ্দ রাখা হয়। মণ্ডপ প্রতি সরকারি বরাদ্দ হচ্ছে ৫০০ কেজি চাল। এভাবে সারা দেশে ২৮০০০ হাজার মণ্ডপে সরকারি বরাদ্দ দেয়া হয়। এছাড়া ম্যাজিট্রেট, ডিসি, এসপি, এমপি, মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে আলাদা অনুদান তো আছেই।

ধরে নিলাম প্রতি কেজি চালের মূল্য ৫০ টাকা।
তাহলে ৫০০ কেজি চালের মূল্য দাড়ায় ২৫ হাজার টাকা।
তাহলে ২৮০০০ হাজার মণ্ডপে সরকারী বরাদ্দ দেয়া হয় = ৭০ কোটি টাকা
ধরে নিলাম ১টি কোরবানির গরুর মূল্য ৫০ হাজার টাকা।
তাহলে ৭০ কোটি টাকা দিয়ে ১৪ হাজার গরু ক্রয় করা যাবে।

ধরে নিলাম
৫০ হাজার টাকার ১টি গরুতে ১০০ কেজি মাংশ হয়
তাহলে ১৪ হাজার গরুতে মাংশ হবে ১৪ লক্ষ কেজি ।
প্রত্যেক দরিদ্র ব্যক্তিকে যদি ২৫০ গ্রাম করে গরুর মাংশ দেওয়া হয়
তবে ১৪ লক্ষ কেজি মাংশ দেয়া যাবে ৫৬ লক্ষ দরিদ্র ব্যক্তিকে।

অর্থাৎ যে পরিমাণ বরাদ্দ পূজা মণ্ডপগুলোতে মূর্তি পূজার জন্য দেওয়া হচ্ছে,
সেই সমপরিমাণ বরাদ্দ যদি ঈদ উপলক্ষে দরিদ্র মানুষগুলোকে দেয়া হতো
তবে সেখান থেকে ৫৬ লক্ষ দরিদ্র মানুষ একটি দিনের জন্য পেট ভরে মাংশ খেতে পারতো, পূরণ হতো তাদের আমিষের চাহিদা।

শুনেছি, সরকার নাকি পশু কোরবানির জন্য স্থান নির্দ্দিষ্ট করেছে।
কসাই নির্দ্দিষ্ট করেছে, জবাইকারী হুজুরও নির্দ্দিষ্ট করেছে।
খুব ভালো কথা। সরকার তাহলে কোরবানী উপলক্ষে সরকারীভাবে ব্যবস্থা করুক
সেখানে সরকারী টাকা দিয়ে গরু ক্রয় করে, সেই গরুর মাংশ গরীবদের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। পূজায় যতটুকু বরাদ্দ দেয়া হয়, ততটুকু বরাদ্দ দিলেই কমপক্ষে ৫৬ লক্ষ দরিদ্র ব্যক্তির মধ্যে ঈদের দিন মাংশ বণ্টন করা সম্ভব ।

সরকার মহোদয়,
জনগণের স্বার্থে বিষয়টি একটু ভেবে দেখবেন কি ???
collected
Photo
Wait while more posts are being loaded