মূর্তি বিভ্রাট
-ইয়াহইয়া মাহমুদ

এখন বাংলাদেশে একটা ট্রাজেডি চলছে সেটা হলো মূর্তি । আমরা যেখানেই যাই সেখানেই যেন মূর্তি ঘিরে রাখছে আমাদের । আবার অনেকে এই সব মূর্তিদের একেকটা দেবী রুপে মান্য করছে ।
যেমন, শক্তির দেবী , ক্ষমতার দেবী, ন্যায় ও অন্যায়ের দেবী ও এখন ম্যানুফেরচার হয়েছে ।
আমাদের সংস্কৃতি মানে কি মূর্তি ?
আর একটা মূর্তি কি কখনও ন্যায় ও অন্যায় বিচার করতে পারে ?
আমরা সবাই বুঝি ও জানি যে মূর্তি কখনও কারো ভালো বা খারাপ করতে পারে না ।
কিন্তু তারপরেও কেন ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশে যেখানে দেশের সব কাজের বিচার ও বিচার বিভাগ নিয়ন্ত্রন করা হয় সেখানে একটা অর্ধ নগ্ন গ্রীক দেবীর মূর্তিকে ন্যায় বিচারের প্রতিক হিসেবে রাখা হয় ? কেন ?
এখানে আমাদের বাঙালি জাতির ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে অবমূল্যায়ন করা হয়েছে ।
বাঙালি হিসেবে এবং একজন মুসলিম হিসেবে আমি কখনও এই মূর্তি কে মেনে নিতে পারি না ।
বাঙালি জাতি কি সারা জীবনই ভিন জাতি-গোষ্ঠী, ভিন্ন সংস্কৃতি কিংবা ভিন কোন দেশের আনুগত্য স্বীকার করবে ?
আমাদের দেশের যারা উচ্চপদস্থ ও যাদের উপর রাষ্ট্রের দায়িত্ব ও ক্ষমতা ন্যাস্ত তারাই যদি আমাদের সংস্কৃতিকে অবমূল্যায়ন করে । যেখানে তাদের রক্ষা করার কথা আমাদের সংস্কৃতিকে সেখানে তারা সব কিছুকে গলাটিপে হত্যা করছে ।
আমাদের সংস্কৃতি মানে কি শুধু মূর্তি ? আমাদের সংস্কৃতি মানে কি এইই মূর্তির প্রতি অন্ধ বিশ্বাস।?

আমি কারো ধর্মিও অনুভুতিতে আঘাত দেওয়ার জন্য কথা গুলো লিখিনি । বরং দেশের অবস্থা দেখে লিখলাম। আর কেউ যদি এতে কোন কষ্ট পান বা ধর্মিও অনুভূতিতে আঘাত পান তাহলে ক্ষমা দৃষ্টিতে দেখবেন
Wait while more posts are being loaded