Post has attachment
কাতার মিউজিয়ামের প্রবেশ পথে নিরবে বয়ে চলছে অসাধারণ একটি ঝর্ণা ৷
Photo

回 এপ্রিল ফুল দিবসের ইতিহাস==> এপ্রিল ফুল দিবসটি সৃষ্টির সাথে রয়েছে মুসলমানদের করুন ও হৃদয়র্স্পশী এক ইতিহাস। ১ এপ্রিলের এই ইতিহাস অন্যান্য জাতি জানলেও অনেক মুসলিম জাতি না জানার কারনে এই বিজাতীয় অপসংস্কৃতিকে আপন করে নিয়েছে। তৎকালীন ইউরোপীয় দেশে স্পেনে মুসলিম সেনাপতি তারিক বিন যিয়াদ এর নেতৃত্বে ইসলামি পতাকা উড্ডীন হয় এবং মুসলিম সভ্যতার গোড়পত্তন হয়। সুদীর্ঘ প্রায় আটশ বছর পর্যন্ত সেখানে মুসলমানদের গৌরবময় শাসন বহাল থাকে। কিন্তু পরবর্তীতে আস্তে আস্তে মুসলিম সম্রাজ্যে ঘুনে ধরতে শুরু করে এবং মুসলিম শাসকরাও ভোগ বিলাসে গা ভাসিয়ে দিয়ে ইসলাম থেকে দূরে সরে যেতে থাকে। ফলে মুসলিম দেশগুলোও ধীরে ধীরে মুসলমানদরে হাত ছাড়া হয়ে খ্রীস্টানদের দখলে যেতে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় আসে স্পেনের পালা। মুসলিম শাসনে নেমে আসে পরাজয়ের কাল ছায়া। খ্রীস্টান জগত গ্রাস করে নেয় স্পেনের বিজয় পতাকা।
回 জর্জ ফিার্ডিন্যান্ড ও ইসাবেলা : ১ লা এপ্রিলের মুসলমান গণহত্যার দুই কুশিলব।
এক পর্যায়ে মুসলিম নিধনের লক্ষ্যে খ্রীস্টান রাজা ফার্ডিন্যান্ড বিয়ে করে পর্তুগীজ রানী ইসাবেলাকে। যার ফলে মুসলিম বিরোধী দুই বৃহৎ খ্রীস্টান শক্তি সম্মিলিত শক্তি রুপে আত্নপ্রকাশ করে। রানী ইসাবেলা ও রাজা ফার্ডিন্যান্ড খুঁজতে থাকে স্পেন দখলের মোক্ষম সুযোগ। পরবর্তীতে মুসলিম সভ্যতার জ্ঞান বিজ্ঞানের কেন্দ্রস্থল গ্রানাডার বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করে। একপর্যায়ে মুসলমানদের অসতর্কতার সুযোগে খ্রীস্টান বাহিনী ঘিরে ফেলে গ্রানাডার তিন দিক । এক মাত্র মহাসমুদ্রই বাকী থাকে মুসলমানদের বাচার পথ। অবরুদ্ধ মুসলমানগন কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে এদিক সেদিক ছুটতে থাকে। মুসলমানদের এই অসহায় অবস্থায় রাজা ফার্ডিন্যান্ড প্রতারনার আশ্রয় নেন। তিনি দেশব্যাপী ঘোষনা করে দেন – “যারা অস্ত্র ত্যাগ করে মসজিদগুলোতে আশ্রয় নেবে এবং সমুদ্র পাড়ে রক্ষিত নৌযানগুলোতে আরোহন করবে তাদেরকে সব রকমের নিরাপত্তা দেওয়া হবে।” – এমন এক বিপর্যয়কর পরিস্থিতিতে মুসলমানগণ যেন আশার আলো খুঁজে পায়। সরল মনে বিশ্বাস করে মুসলমানগন মসজিদ ও নৌযানগুলোতে আশ্রয় গ্রহন করে। কিন্তু ইতিহাসের জঘন্য নরপিশাচ প্রতারক রাজা ফার্ডিন্যান্ড তালা লাগিয়ে দেয় মসজিদগুলোতে এবং মাঝ দরিয়ায় ভাসিয়ে দেয় নৌযানগুলোকে। এরপর বিশ্ব মানবতাকে পদদলিত করে ঐ মানুষ নামের পশু ফার্ডিন্যান্ড আগুন লাগিয়ে দেয় মসজিদগুলোর চার পাশে এবং মধ্য সমুদ্রে ডুবিয়ে দেয় নৌযানগুলোকে। ফলে অগ্নিদগ্ধ ও পানিতে হাবুডুবু খাওয়া লক্ষ লক্ষ নারি পুরুষ আর নিষ্পাপ শিশুর আর্ত চিৎকারে ভারি হয়ে উঠে স্পেনের আকাশ বাতাস। মুহূর্তের মধ্যে নির্মমভাবে নিঃশেষ হয়ে যায় সাত লক্ষ মুসলমানের তাজা প্রাণ। আর এভাবেই ঘটে স্পেনের আটশ বছরের মুসলমান শাসনের, আর পৃথিবীর ইতিহাসে রচিত হয় মনবতা লঙ্ঘনের নির্মম অধ্যায়। যেদিন এই মর্মন্তিক হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছিল সেদিন ছিল ১৪৯২ খ্রীস্টাব্দের ১লা এপ্রিল। তখন থেকে মুসলমানদেরকে ধোঁকা দেওয়ার সেই নিষ্ঠুর ইতিহাস স্মরনার্থে খ্রীস্টানরা প্রতি বছর দিনটিকে এপ্রিল ফুল পালন করে আসছে। দুঃখের সাথে বলতে হয় “এপ্রিল ফুল” এর প্রকৃত ইতিহাস সর্ম্পকে না জানার কারনে আমরা যারা মুসলমান তাদের এক অংশ পূর্বপুরুষদের দুর্ভাগ্যজনক অধ্যায়কে হাসি তামাশা আর আনন্দের খোরাক বানিয়ে এপ্রিল ফুল পালন করছি। আর কতকাল আমরা আত্মবিস্মৃত হয়ে থাকব ? নিজেদের ইতিহাস ঐতিহ্য সর্ম্পকে বিস্মৃতির এই ধারা আর কতকাল আমাদের মধ্যে বিরাজ করবে।? এই অজ্ঞতাই আমাদের জন্য সবচেয়ে মারাত্মক কাল হয়ে দেখা দিয়েছে। এই দিনে মানুষ এমন সব মিথ্যা কথা বানিয়ে বলবে যা শুনলে মানুষের হার্ট এটাক হয়ে মৃত্যুও হতে পারে সুতরাং এগুলি এড়িয়ে চলুন ।

回 আল্লাহ তা‘য়ালা আল কোরআনে বলেন==> ,‘মিথ্যা তো তারাই বানায় যারা আল্লাহর নিদর্শন সমূহের ওপর ঈমান রাখে না। বস্তুত তারাই মিথ্যুক।’ (সূরা নাহাল : ১০৫)

回 টিকা=> মিথ্যা বললে আপনি বেইমান এবং গোনাহগার হবেন তাই কি দরকার গোনাহার পরিমাণ বাড়িয়ে ।

回 বিঃদ্রঃ- আল্লাহ্‌ আমাদেরকে সকল বাতিলপন্থি ও ইসলামের দুশমন থেকে ইমাণ ও আমাল রক্ষা করুন এই দোয়া হুজুর পাক (ﷺ) এর ওসিলা করে কবুল করুনঃ-
<====আমীন!!====আমীন!!====আমীন!!====আমীন!!====আমীন!!====আমীন!!====>

Post has attachment
আজ প্রাতিষ্ঠানিক একটা প্রোগ্রামে "জামিয়া মাদানিয়াতে" আসলাম ৷
মা-শাআল্লাহ বাহিরে এবং ভেতরে অত্যন্ত সুন্দর রুচির পরিচয় দিয়েছে তারা ৷ ভবনগুলোর হৃদয়কাড়া দৃশ্য, আভ্যন্তরীণ উন্নত ব্যাবস্থাপনা, নিরাপত্তার নিশ্ছিদ্র আবরণ, সব মিলিয়ে দারুন লেগেছে ৷
PhotoPhotoPhoto
30/01/2017
3 Photos - View album

একফোঁটা মধু মাটিতে পড়ে আছে!
পাশ দিয়ে ছোট্র একটি পিপীলিকা যাচ্ছিল!
মধুর ঘ্রাণ নাকে ঢুকতেই থমকে দাঁড়াল!
ভাবলো একটু মধু খেয়ে নেই!
তারপর না হয় সামনে যাবো!
এক চুমুক খেলো!
বাহ্! খুব মজা তো! আর একটু খেয়ে নেই!
আরেক চুমুক খেলো!
তারপর সামনে চলতে লাগলো!
হাটতে হাটতে ঠোঁটে লেগে থাকা মধু চেটে চেটে খাচ্ছিল!
ভাবলো,এত মজার মধু আরেকটু খেয়ে নিলে কি হয়?
আবার পিছনে ফিরলো!
পূর্বে মধুর একপাশ থেকে খেয়েছিল!
এবার চিন্তা করলো ভিতরে মনে হয় আরও মজা!
এবার আস্তে আস্তে বেয়ে বেয়ে মধু ফোঁটার উপরে উঠে গেল!
বসে বসে আরামছে মধু খাচ্ছে!
খেতে খেতে এক পর্যায়ে পেট ফুলে গেল!
ঐ দিকে আস্তে আস্তে পা দুটো মধুর ভিতরে ঢুকে যাচ্ছে!
তখনই হঠ্যাৎ টনক নড়লো তার!
কিন্তু কতক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে!
মধু থেকে নিজেকে ছাড়িয়ে নেয়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চলছে!
কিন্তু নাহ্! মধুতে তার সমস্ত শরীর মাখামাখি অবস্থা!
অনেক চেষ্টা করেও নিজেকে আর উদ্ধার করতে সক্ষম হলো না!
নাকে মুখে মধু ঢুকে দম বন্ধ হয়ে যেতে লাগল!
অবশেষে.. পিপীলিকাটি মধুর ভিতরে আটকে পড়েই মৃত্যু বরণ করল!!

এই বিশাল বড় দুনিয়াটাও এক ফোটা মধুর মত!
যে এই মধুর পাশে বসে হালাল ও অল্পতে তুষ্ট থাকবে সেই বেঁচে গেল!
আর যে এই স্বাদের মধ্যে ডুব দিতে গিয়ে হালাল-হারাম বাচ-বিচার না করে শুধু খেয়েই গেল,আরেকটু আরেকটু করতে করতে একদিন সে এর মায়াজালে আটকা পড়েই মারা যাবে!
তখন আর কেউই উদ্ধার করতে পারবে না!
ধ্বংস অনিবার্য!
তার দুনিয়া ও আখেরাত দু'টোই শেষ!

হে আল্লাহ্ তুমি আমাদেরকে এই দুনিয়ার ভালাবাসায় অন্ধ করে দিওনা! আমাদেরকে হালাল-হারাম বেছে চলার তাওফিক দান করুন... আমিন!!

Post has shared content
সুস্থরা যখন পাগলকে অনুসরণ করে তখন তাদের সুস্থতাও আমার কাছে প্রশ্নবিদ্ধ মনে হয় ৷ একজন বোধহীন পাগলের উপর শরীয়তের কোন দায়বদ্ধতাই যেখানে নেই ৷ সেখানে তার কাছে গিয়ে মানুষ কিভাবে শরীয়ত ও মা'রেফাত খুঁজে পাবে? পাগল তো প্রতিবন্ধি! সুস্থরা কোন বুদ্ধিতে তার পাগলামীকে কেরামতী ভাবতে পারে? কখনো ভাবলে মনে হয় ওরা পাগল হয়েও সুস্থদের অপেক্ষা বেশি সম্মানের অবস্থানে আছে ৷ তবে কি জগতে পাগলের নেতৃত্ব কায়েম হবে? আমরা তো ওদেরকে শুধু বাবা নয়, মন্ত্রী বানালেও বোধহয় আমাদের আত্মমর্যাদায় কোন নাড়া আসবে না ৷
যারা এসব পাগলদের দিয়ে বিজনেস করছে তাদের ব্যাবসার রমরমা হালত দেখে নতুন নতুন পাগল আর বিজনেসম্যানের আবিষ্কার হচ্ছে ৷
আমি হলফ করে বলতে পারি, এরা ইসলামের যতটুকু ক্ষতি করেছে কোন কাফের মুশরিকও এতটা ক্ষতি করে নি ৷ 
Photo

Post has attachment
পুরোনো একটি প্রতিষ্ঠানের জন্য ডিজাইনটি করে দিলাম ৷ বন্ধুরা! কেমন হলো? 
Photo

Post has attachment
মায়ের নামে প্রতিষ্ঠান ৷ সকলের আন্তরিক দোয়া কমনা করছি ৷
Photo

Post has attachment
আমার তৈরি logoটি কেমন হল? 
Photo

Post has attachment
আমার নানা মাওলানা সালাউদ্দীন (রহ.)
আল্লাহ তাঁকে জান্নাতুল ফেরদাউস দান করুন ৷
আমীন ৷
Photo

আকাবীরগন একে একে সকলেই চলে যাচ্ছেন!
বিগত সপ্তাহেই হারালাম জগতবিখ্যাত তিন মহাপুরুষকে ৷ জানিনা, আমাদের কপালে কি আছে? হে আল্লাহ! অভিভাবকহীন এই প্রান্তরে আমাদেরকে সঠিক পথে অটল থাকার তাওফীক দান করো ৷
Wait while more posts are being loaded