Profile cover photo
Profile photo
মোঃ হারুন অর রশিদ (অমি)
6,271 followers -
তবে একলা চল রে...।।
তবে একলা চল রে...।।

6,271 followers
About
মোঃ's posts

Post has attachment
আজ আর কোন কবিতা নয়। জীবন যখন ছন্দবিহীন, নতুন করে কবিতায় ছন্দ খুজে আর কি লাভ...।।
Photo

বিদায়,
বলাটা সহজ,
দেওয়াটা কঠিন,
নেওয়াটা কষ্টের...।।

Post has attachment
সেদিন তুমি আমি
==========
একদিন দেখা হবে জীবনের পথে,
হঠাৎ করেই থমকে যাবে পথচলা,
অপলক চাহনি রবে শান্ত সুস্থির,
কোন অভিমান নেই শুধু চেয়ে থাকা।
সময় পিছিয়ে যাবে এক নিমিষেই,
অস্পষ্ট স্মৃতিতে কিছু একান্ত সময়,
মোচড় দিয়ে উঠবে একটা ক্ষীণ কষ্ট,
কিছু অপূর্ণ চাওয়া, কিছু হাহাকার।
 
নীরবতা ভেঙ্গে বলা “কেমন আছ?”
“ভালো আছি” বলে চাপা আর্তনাদ,
স্বল্প সময় যেন বহমান মহাকাল,
ভালো থেকো সবসময় বলে বিদায়।
কেউ বলবে না আবার দেখা হবে,
দুটি পথ হবে অলিখিত বিপরীত,
আফুরন্ত কথার পাখিরা থাকবে নির্বাক,
লুকিয়ে মোছা হবে চিকচিকে অশ্রুজল,
জীবনের বেচাকেনা শেষে ক্লান্ত সেদিন তুমি আমি...।।
Photo

Post has attachment
একটা ছন্দবিহীন গল্প
=============
: এটা এড়িয়ে যাচ্ছেন কেন?
: একটা ছন্দবিহীন গল্প তাই
 
: আমি তো সবগুলিই শুনতে চাই
: ঠিক আছে, তাহলে কোন আপত্তি নেই
 
আমি চাইনি কারো বন্ধু হতে
তবু সে বাড়িয়ে ছিল বন্ধুত্বের হাত
ফিরিয়ে দিতে চেয়েও দিতে পারি নি
মানুষ আমি, চাওয়া-পাওয়ার উদ্ধে তো নই।
 
একটা বন্ধ দরজা খুলে দিয়েছিলাম সেদিন,
আদর করে বসিয়েছিলাম দেবীর আসনে।
মনের গোপন ঘরে জায়গা করে দিয়েছিলাম,
পূজো দিতে চেয়েছিলাম সকাল বিকেল।
কল্পনার সেই নাম না জানা বর্ণিল ফুলগুলি
এনে রাখতে চেয়েছিলাম তাঁর পদতলে।
এই উৎফুল্লতা আর পাগলামি দেখে আমার
অনেক দিনের পুরানো বন্ধু একাকীত্ব ভীষণ
ক্ষুব্ধ হয়ে আমাকে ছেরে চলে গিয়েছিল।
 
: তারপর?
: তারপর, যা হবার তাই হলো।
 
দেবী তো ব্যক্তিসম্পত্তি নয় যে আটকিয়ে রাখব
একজন পূজারীর পূজোয় সে তুষ্ট হবে কেন?
যখন হাজারো পূজারী তাঁর আরাধনায় রত।
আমি তাকে রাখতে পারি নি, সে চলে গেছে
শুধু একটা আঁচড়ের দাগ এখনও রয়ে গেছে।
 
: দুঃখজনক
: হা হা হা, দুঃখজনক
 
আমার কাছে সুখ তো নীল আকাশের রংধনু
ক্ষণিকের ভালোলাগা বিলিয়ে, মিলিয়ে যায়।
অথবা মধ্যরাতের গগন কাঁপানো বজ্রপাত
মুহূর্তেই আলোকিত চারিদিক, আবার অন্ধকার।
 
: এখন?
: এইতো আছি
 
একাকীত্ব এর কছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছি
আভিমান ভুলে সে আবার ফিরে এসেছে।
এইতো বেশ চলছে, আগের মতোই...।।
Photo

Post has attachment
পাঁচ পাঁচটি দিন বন্ধ রাখিবার পর হঠাৎ করিয়া গুগল মহাশয় আজ জি প্লাস এর দরজা আমার জন্যে উন্মুক্ত করিলেন। আমার নিকট এহেন ঘটনা বহুকাল পূর্বে পড়া শরৎচন্দ্র চট্যোপাধ্যায়ের "রামের সুমতি" মতো মনে হইল। আর সেই উন্মুক্ত দরজার ভেতর দিয়া রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের "খোকাবাবুর প্রত্যাবর্তন" এর মতো আমি আপনাদের নিকট উপস্থিত হইলাম। একটা ঘটনা কিছুতেই বুঝিতে পারিলাম না আমার প্রতি এহেন বিরূপ আচরণের কারনের পিছনের কারনখানা কি? আপনারা এই বিষয়ে কিঞ্চিৎ পরিমাণ জানিয়া থাকিলেও আনুগ্রহ পূর্বক অবহিত করিতে ভুলিবেন না...।।
Photo

Post has attachment
আমি যা দিতে পারি
============
রংধনু রাঙ্গা আকাশ আমি তোমায় দিতে পারব না
আমি দিতে পারি তোমায় অসীম ভালবাসা ভরা এক সুনীল আকাশ
সেই আকাশে তুমি ভাসবে সাদা মেঘের ভেলা হয়ে।
 
একশ আটটি নীল পদ্মও আমি এনে দিতে পারব না
আমি এনে দিতে পারি শাহবাগের মোড় থেকে কেনা একটি লাল গোলাপ
যেটি হাতে করে তোমায় বলব “ভালবাসি”।
 
দামী শাড়ি বা অলংকার কোনটিই আমি দিতে পারব না
আমি দিতে পারি সস্তা লাল পাড়ের হলুদ শাড়ি আর কাঁচের রেশমি চুড়ি
যেটি পরে পয়লা বৈশাখ অথবা বসন্তে তুমি হাঁটবে পাশাপাশি।
 
ঢাকায় ফ্ল্যাট বা গাড়ি হবে এমন কথা তোমায় দিতে পারব না
আমি দিতে পারি আমার গ্রামে দক্ষিণের জনালাওয়ালা একটা চৌচালা টিনের ঘর
যেখানে রাতে জোনাকি পোকা বা বৃষ্টির শব্দ তোমায় বিমোহিত করবে।
 
দামী রেস্টুরেন্টে খাবারের নিশ্চয়তাও তোমায় দিতে পারব না
আমি দিতে পারি তিনবেলা পেটপুরে খাবার মতো মধ্যবিত্ত জীবনের নিশ্চয়তা
আর আজীবন পাশে থকবার অঙ্গীকার।
 
আমি হয়তো তোমাকে কিছুই দিতে পারব না
আমি দিতে পারি তোমার কোলজুরে একটা ফুটফুটে দেবশিশু
যে তোমাকে ডাকবে “মা” বলে।
Photo

Post has attachment
ছন্নছাড়ার গল্প
=========
একটা জীবন; ভবঘুরে, ছন্নছাড়া
যেন শেষ রাতের অবহেলিত চাঁদ
ফিকে, মৃতপ্রায়, জোছনাবিহীন
অথবা চৌরাস্তার মোড়ের ডাস্টবিন
ব্যবহারের শেষে সবাই দূরে চলে যায়।
 
হয়তো সে মানুষের মতোই
দুটি হাত, দুটি পা, চোখ, কান
নাক, মুখ, মাথা, চুল সবই আছে
শরীর কাটলে লাল রক্ত বের হয়
তিনবেলা ক্ষুধা পায়, রাতের বেলা ঘুম পায়
একটা অনুভূতিপূর্ণ মনও আছে
হাসে, কাঁদে, দুঃখ পায়, কবিতা লিখে, গান গায়
আকাশ দেখলে উদাস হয়, বৃষ্টি হলে ভিজতে চায়
বয়স শেষে মারা যায়।
 
শুধু তার ঠিকানা নেই, আগামীকালের চিন্তা নেই
কেউ পথ চেয়ে নেই, কোন পিছুটান নেই
জীবনের কাছে চাওয়া নেই, হারাবার ভয় নেই
কারো প্রতি রাগ নেই, কোন আভিযোগ নেই
একজন ছন্নছাড়ার আবার আভিযোগ কিসের?
Photo

Post has attachment
একটি গোপন খবরঃ
এক কান দিয়ে শুনে আরেক কান দিয়ে বের করে দেবার অনুশীলন চলছে। যে যা খুশি বলতে পারেন...।।
Photo

Post has attachment
একটি অপেক্ষার মৃত্যূ
=============
কতটা সময় পেরিয়ে গেছে টের পাইনি
কতগুলো দিন, মাস অথবা অনেকগুলো বছর
তবু আমার ধর্য্যের বাঁধ ভেঙ্গে যায়নি,
হাত পা গুঁটিয়ে গুটিসুটি মেরে বসে আছি
কোন এক সুবোধ বালকের মতো
যেন কেউ তাকে বলেছে “চুপচাপ বসে থাকো”।
 
মহাকালের পথে পথ চেয়ে আছি
কতবার আশাহত হয়েছি, হিসাব নেই
কতবার মুখ ফিরিয়ে নিয়েছি, তারও কোন হিসাব নেই
কতবার যে ভেবেছি, আমার দ্বারা হবে না, তারপরও
মনের কোণে এক ক্ষীণ আশা উঁকি দিয়ে বলেছে,
“অপেক্ষা করো কোন একদিন সে আসবেই”।
 
কখন যে শৈশব থেকে যৌবনে এসে পরেছি, টের পাইনি
কতগুলো বর্ষা বা বসন্ত কেটে গেছে, মনে নেই
বৃষ্টিস্নাত শিউলী ফুলের সুবাস পরখ করে দেখা হয়নি
কৃষ্ণচূড়া রাঙা পথে হাটাও হয়নি কোনদিন
ভরা পূর্ণিমায় বিনিদ্র রাত্রিযাপন গল্পই রয়ে গেছে
চাওয়া পাওয়াগুলো সযত্নে তুলে রেখেছি শুধু তাঁর অপেক্ষায়।
 
পথ চেয়ে আছি মহাকালের পথে  
অনিশ্চিত পাওয়া কে আঁকড়ে ধরে চলছে জীবন
বছরে বছরে আমার বেল্টের পরিধি বেড়েছে
জামার দৈর্ঘ্যের পরিবর্তন হয়েছে
জুতোর সাইজ বদলে গেছে
কিন্তু আমার বিশ্বাস বদলায় নি।
 
অবশেষে কোন একদিন সুদীর্ঘ অপেক্ষার প্রহর ফুরালো
অর্ধেক জীবনের বাঁধা পেরিয়ে সে আসলো আমার জীবনে
আপন করে নিতে নয়, বলতে বিদায়...।।
Photo

Post has attachment
ভালবাসব তোমাকে
============
আমি তোমাকে এতটাই ভালবাসব,
যে ভালবাসায় সমস্ত ধরিত্রীর ভালবাসার ভীত নড়ে উঠবে
সবাই বিস্ফোরক নয়নে তাকিয়ে দেখবে
ভালবাসার এক নতুন অধ্যায়।
 
আমি তোমাকে এতটাই ভালবাসব,
যার উষ্ণতায় সূর্যের আলো ম্রিয়মান হয়ে যাবে
অন্ধকার নেমে আসবে পৃথিবীর বুকে
ভালবাসার জোছনায় উজ্জ্বল হয়ে উঠবে চারিদিক।
 
আমি তোমাকে এতটাই ভালবাসব,
যার আকর্ষণে ঈশান কোণে কালো মেঘ জমে উঠবে
প্রবল বারিধারা নেমে আসবে ধরণীর বুকে
হঠাৎ শীতল পরশে জুরাবে প্রতিটি প্রান।
 
আমি তোমাকে এতটাই ভালবাসব,
যার উত্তাপে হিমালয়ে জমানো বরফ খন্ডগুলি গলে যাবে
নদীর দূকুল ছাপিয়ে বান ডেকে আনবে
উত্তাল স্রোতধারা ধুয়ে নিয়ে যাবে সকল কালিমা।
 
আমি তোমাকে এতটাই ভালবাসব,
যার কাহিনী ছুয়ে যাবে প্রতিটি হৃদয়
ঈর্ষা আর প্রশংসার ফুলঝুরিতে ভরে যাবে চারিদিক
যা শুনে সদ্য যৌবনপ্রাপ্ত কিশোরীর মতো তুমি লজ্জায় লাল হয়ে উঠবে।
 
আমি তোমাকে এতটাই ভালবাসব,
যা দেখে সকল কিংবদন্তি জুটিরাও দাড়িয়ে সম্মান জানাবে
সবাই একযোগে স্বর্গের রাস্তায় ধর্মঘট ডেকে বলবে,
এ জুটি ছাড়া ইতিহাস অপরিপূর্ণ।
 
আমি তোমাকে এতটাই ভালবাসব,
যে ভালবাসার সুখে তোমার মরে যেতে ইচ্ছে করবে
তারপরও তুমি বেঁচে থাকবে
আরও অধিক ভালবাসা পাবার আশায়।
Photo
Wait while more posts are being loaded